রাজনীতি

সিরাজগঞ্জ-১ আসনে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন নাসিম পুত্র তানভীর শাকিল জয়

কাজিপুর উপজেলা এবং সিরাজগঞ্জ সদরের পাঁচটি ইউনিয়ন নিয়ে সিরাজগঞ্জ-১ আসন।

শহীদ ক্যাপ্টেন মনসুর আলীর সন্তান আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, ১৪ দলের সমন্বয়ক সাবেক স্বরাষ্ট্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুর পর নিয়মানুযায়ী আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এরই মধ্যে উপ-নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এই আসনে প্রার্থী বাছাইয়ের জন্যে গত ১৭ আগস্ট থেকে দলীয় মনোনয়ন বিক্রি ও জমা নেওয়ার কাজ শুরু করেছে।

গত ১৯ আগস্ট নাসিমপুত্র ও কাজিপুরের সাবেক এমপি তানভীর শাকিল জয় দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেন। আবার ২০ আগস্ট একই আসনে মোহাম্মদ নাসিমের বড় ভাই ড. মোহাম্মদ সেলিমের পুত্র ব্যারিস্টার রিপন দলীয় মনোনয়ন তুলেছেন। ফলে কাজিপুরের রাজনীতি মাঠ এখন বেশ সরব।

নাসিমপুত্র সাবেক সংসদ সদস্য তানভীর শাকিল জয় বলেন, ‘সিরাজগঞ্জ-১ আসন শহীদ ক্যাপ্টেন মনসুর আলীর পূণ্যভূমি। সেখানে তিনি এমপি ছিলেন। তার সন্তান এবং আমার বাবা আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বারবার নির্বাচিত হয়েছেন। একই আসনে আমিও এমপি নির্বাচিত হয়েছি। বাবা আমৃত্যু কাজিপুর তথা সিরাজগঞ্জবাসীর পাশে থেকেছেন। করোনাভাইরাস মহামারিতেও তিনি মানুষের পাশে ছুটে গেছেন। করোনায় আক্রান্ত হয়েই তিনি মারা গেছেন। সেই আসনে উপনির্বাচনে আমি একজন প্রার্থী। দল যদি যোগ্য মনে করে এবং নির্বাচিত হই, তবে দাদা ও বাবার মতোই মানুষের জন্য কাজ করে যাব।’

এদিকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে ড. মোহাম্মদ সেলিমের ছেলে শেহেরিন সেলিম রিপন বলেন, ‘আমি মনোনয়ন চাচ্ছি, কারণ কাজিপুরের মানুষ ওখানকার নেতৃত্বের পরিবর্তন চায়। এলাকার মানুষ চাচ্ছে, আমি যেন এখানে এসে তাদের পাশে দাঁড়াই। আমার বাবাও এমপি ছিলেন। বাবার পথ ধরে আমি মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয়, তবে আমি নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করব। অন্যদিকে আমার চাচাতো ভাই জয়ও একই আসনে মনোনয়ন চাচ্ছেন। চাইতে পারেন। তবে দলের সিদ্ধান্তের প্রতি আমার আস্থা ও শ্রদ্ধা আছে, থাকবে।

অবশেষে সব জল্পনা কল্পনা কাটিয়ে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামীলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য,১৪ দলের সমন্বয়ক, সাবেক স্বরাষ্ট্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রয়াত আলহাজ্ব মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়
আসন্ন উপনির্বাচন উপলক্ষে এখনও খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ হয়নি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কাজিপুরে মোট ভোটার সংখ্যা ছিলো ৩ লাখ ৪৮ হাজার ১৬৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটারের সংখ্যা ১ লাখ ৭৩ হাজার ২০১জন, মহিলা ভোটার ১ লাখ ৭৪ হাজার ৯৬৫ জন।

সম্পর্কিত নিউজ